স্বাস্থ্য উপকারিতায় তিসির তেল

তিসি তেলের উপকারিতা

স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী তিসির তেল। নিয়মিত এই তেল সেবন করলে দেহের অনেক ক্ষতিকর জীবাণু বা মারাত্মক রোগের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। যথাঃ

১) ওজন কমানোর জন্যঃ আমাদের দেহের কোলন সিস্টেম উন্নত করে এবং পাকস্থলীর হজম কাজে সহয়তা করে। তাছাড়া শরীর থেকে বিষাক্ত টক্সিন বের করতে সাহায্য করে।

২) কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করেঃ বেশির ভাগ সময় বাইরের খাবার খেয়ে আমাদের পেটে গ্যাসের সমস্যা হয় এবং পরে তা কোষ্ঠকাঠিন্যে রূপ নেয়। তিসির তেল আপনার এই প্রতিদিনের সমস্যা থেকে মুক্ত করতে সাহায্য করবে।

৩) ডায়রিয়া সমস্যার সমাধানঃ অনেকেই আছেন ঘন ঘন ডায়রিয়ার আক্রান্ত হয়ে পড়েন। তিসির তেল আপনার মেটাবলিজম সিস্টেম উন্নত করতে সাহায্য করে। নিয়মিত তিসির তেল সেবন করলে এই সমস্যা দূর করবে।

৪) ক্যান্সারের প্রাকৃতিক প্রতিষেধকঃ তিসির তেল আপনাকে প্রাকৃতিকভাবে ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করবে। বিশেষ করে ব্রেস্ট ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে। ALA (alpha linolenic acid) যা শরীরে থাকা ক্যান্সারের কোষ তৈরি হতে বাধা দেয়।

৫) হার্ট ভালো রাখেঃ তিসির তেলে বিদ্যমান Alpha linolenic acid হার্টকে সুস্থ রাখে এবং হার্টজনিত সকল রোগকে দূরে রাখে।এক গবেষণায় দেখা গেছে, যদি কোন ব্যক্তি প্রতিদিন ১.৫ গ্রাম তিসির তেল সেবন করলে। তার ৫০ শতাংশ হার্টের স্বাস্থ্য ঝুকি কমে যায়।

৬) কোলেস্টেরল কমায়ঃ প্রতিদিন এক চা-চামচ তিসির তেল গ্রহন করলে১২ সপ্তাহের মধ্যে কোলেস্টেরল এর মাত্রানিয়ন্ত্রণে চলে আসবে ইন শা আল্লাহ।

৭) ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ ও ঝুঁকি কমায়ঃ নিয়মিত তিসির তেল সেবনে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

রোগীর সংখ্যা ও কিন্তু কম নয়। দৈনিক ১৩ গ্রাম তিসির তেল সেবন করলে মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যে প্রি-ডায়বেটিস ঝুঁকি থেকে নিজেকে রক্ষা করতে পারবেন ইন শা আল্লাহ।

সতর্কতাঃঅতিরিক্ত মাত্রায় তিসির তেল সেবন স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো নয়। সেক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী নিয়মিত তিসির তেল সেবন স্বাস্থ্যের পক্ষে শ্রেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *