জয়তুন তেল ও ক্যাস্টরওয়েলের যাদুকরী কার্যকারিতা ও ব্যবহারবিধি

সুন্নাহ হিসেবে অনেকেই লম্বা চুল রাখেন যেটাকে বাংলা ভাষাভাষী আমজনতা বাবরিচুল নামেই অধিক চিনে থাকে। চুল বড় রাখলেই শুধু হয়না। এরও যত্ন নেয়া প্রয়োজন।

 পানিতে অধিক মাত্রার ক্যামিকেল ,খাদ্যাভ্যাস, বংশগত বিভিন্ন কারণে খুব দ্রুত আমাদের চুল পড়ে যায়। চুল সকলের নিকটই প্রিয়। তার উপর বাবরিচুল সুন্নাহের প্রতি মুহাব্বতে অনেকেই শখ করে রাখেন। অথচ যত্নের অভাবে সেই ভালবাসা বেশিদিন টিকে থাকেনা অনেকেরই। এতসব দুঃখ কষ্ট থেকে বাচতে আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি জয়তুন তেল ও ক্যাস্টরওয়েল। 

চুলের যত্নে জয়তুন তেলের উপকারিতাঃস্পেনে সব থেকে বেশি পরিমাণে এই গাছ পাওয়া যায়। তার পরেই রয়েছে ইতালি ও গ্রিস। কিন্তু, ব্যবহারের দিক থেকে গ্রিসের নাম রয়েছে একেবারে উপরে। এর কারণ, অলিভ তেলের নানা গুণাগুণ।

স্পেনে সব থেকে বেশি পরিমাণে এই গাছ পাওয়া যায়। তার পরেই রয়েছে ইতালি ও গ্রিস। কিন্তু, ব্যবহারের দিক থেকে গ্রিসের নাম রয়েছে একেবারে উপরে। এর কারণ, অলিভ তেলের নানা গুণাগুণ।

১। যাঁদের খুশকির সমস্যা রয়েছে, তাঁরা সপ্তাহে দু’দিন ভাল করে মাথায় জয়তুন তেল ম্যাসাজ করুন। তেলের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিলে খুব ভাল ফল পাওয়া যায়। 

চুলের যত্নে ক্যাস্টর অয়েলের কার্যকারিতা সমূহঃ

১। চুল পরে যাওয়া, ভেঙ্গে যাওয়া প্রতিরোধ করে।

২। অকালে চুলের গোঁড়া নরম হয়ে চুল উঠে পরা রোধ করে থাকে।

৩। আপনার স্ক্যাল্প মানে মাথার ত্বকের pH ব্যাল্যান্স করে রাখতে সহায়তা করে থাকে।

৪। বিভিন্ন ক্যামিকেল জাতীয় উপাদান ব্যবহারের পর আপনার চুল অনেকটাই নির্জীব হয়ে যায়। ক্যাস্টর অয়েল আপনাকে এই ধরনের সমস্যা থেকে একশত ভাগ মুক্তি দিতে পারে।

৫। খুশকি দূর করে।

৬। চুলের গোঁড়া শক্ত করে , পুষ্টি যোগায় এবং চুলের আগা থেকে একদম গোঁড়া অবধি।

৭। মাথার চুলকানি এবং উকুন নাশক হিসেবেও ভালো কার্যকরী।

৮। চুল ঝলমলে করে তোলে এবং স্মুথ অর্থাৎ মোলায়েম করে চুলের মাঝে জট বাঁধা রোধ করে।

৯। মাথা ঠান্ডা রাখে।

১০। চুলের অগ্রভাগ ফেটে যাওয়া অথবা রুক্ষতা থেকে মুক্তি দেয়। 

ক্যাস্টরওয়েলের ব্যবহারবিধিঃ ক্যাস্টর অয়েল অনেক ঘন হয় তাই জয়তুন তেলের সাথে পরিমান মত মিশিয়ে ব্যবহার করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *